Prativa Sarker RSS feed

Prativa Sarkerএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • মন ভালো নেই
    ভালোবাসায় আদর আসে,সোহাগ আসে,মন ভেঙে যাওয়া আসে, যন্ত্রণা আসে, বিরহ জেগে থাকে মধুরাতে, অপেক্ষা আসে, যা কখনো আসেনা, তার নাম 'জেহাদ'। ভালোবাসায় কোনো 'জেহাদ' নেই। ধর্ম নেই অধর্ম নেই। প্রতিশোধ নেই। এই মধ্যবয়সে এসে আজ রাতে আমার সেই হারিয়ে যাওয়া বাংলা কে মনে ...
  • ৯০তম অস্কার মনোনয়ন
    অনেকেই খুব বেশি চমকে গেলেও আমার কাছে খুব একটা চমকে যাওয়ার মত মনে হয়নি এবারের অস্কার মনোনয়ন। খুব প্রত্যাশিত কিছু ছবিই মনোনয়ন পেয়েছে। তবে কিছু ছবি ছিল যারা মনোনয়ন পেতে পারত কোন সন্দেহে ছাড়াই। কিন্তু যারা পাইছে তারা যে যোগ্য হিসেবেই পেয়েছে তা নিঃসন্দেহে বলা ...
  • খেজুরবটের আত্মীয়তা
    খুব শান্তি পাই, যখন দেখি কালচারগুলো মিলে যাচ্ছে।বিধর্মী ছেলের হাত ধরে ঘুরে বেড়াচ্ছো শহরের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্ত। দুটি হাত ছোঁয়া সংবেদী বিন্দুতে ঘটে যাচ্ছে বনমহোৎসব। দুটি ভিন্ন ধর্মের গাছ ভালোবাসার অক্সিজেন ছড়িয়ে দিচ্ছে। যেন খেজুর বটের অপার ...
  • ম্যাসাজ - ২
    কবি অনেকদিন হতেই “জীবনের ধন কিছুই যাবে না ফেলা” বলে আশ্বাস দিয়ে এলেও ছোটবেলায় হালকা ডাউট ছিল কবি কোন ধনের কথা বলেছেন এবং ফেলা অর্থে কোথায় ফেলার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন? ধন যে ফ্যালনা জিনিস নয়, সেটা আবার নিমোর ছেলেদের থেকে ভালো কে বুঝত! কিন্তু সেই নিয়ে কাব্যি ...
  • মম দুঃখ বেদন....
    সেদিন, অঝোর ধারে কাঁদতে কাঁদতে বাবার চেয়ারের হাতল ধরে মেঝেতে বসে পড়েছি। দৃশ্যত শান্ত বাবা, খানিকক্ষণ কাঁদার সুযোগ দিলেন। এ দুটি বাক্যে ভেবে নেবার কোনো কারণই নেই, বাবা আর আমার সম্পর্ক অতি সুমধুর ও বোঝাপড়ার। বরং তার অব্যবহিত কয়েক মাস আগে পর্যন্তও উত্তপ্ত ...
  • হিন্দু স্কুলের জন্মদিনে
    হিন্দু স্কুলের জন্মদিনেআমাদের স্কুলের খেলার মাঠ ছিল না। থাকার মধ্যে ছিল একটা উঠোন, একটা লাল বেদী আর একটা দেবদারু গাছ। ওই লাল বেদীটায় দাঁড়িয়ে হেডস্যার রেজাল্ট বলতেন। ওই উঠোনটায় আমরা হুটোপাটি আর প্রেয়ার করতাম। আমাদের ইস্কুলের প্রেয়ার ছিল জনগনমন। তখনো ...
  • জার্মানী ডাইরী-১
    পরবাস পর্ব:অদ্ভুত একটা দেশে এসে পড়েছি! এদেশের আকাশ সবসময় মেঘাচ্ছন্ন.. সূর্য ওঠেই না বললে চলে! হয় বৃষ্টি নয়তো বরফ!!বর্ষাকাল আমার খুবই প্রিয়.. আমি তো বর্ষার মেয়ে, তাই বৃষ্টির সাথে আমার খুব আপন সম্পর্ক। কিন্তু এদেশের বৃষ্টিটাও বাজে! এরা অতি সন্তর্পণে ঝরবে! ...
  • মাতৃরূপেণ
    আমার বাবাকে জীবনকালে , আমার জ্ঞান ও বিশ্বাসমতে, থানায় যেতে হয়েছিলো একবারই। কোনো অপরাধ করায় পুলিশ ধরে নিয়ে গিয়েছিলো তা নয়, নিছক স্নেহের আকুল টান বাবাকে টেনে নিয়ে গিয়েছিলো 'মামা'দের মাঝে। 2007 সাল। তখন এপ্রিল মাস। 14ই মার্চ ঘর ছেড়ে মাসতুতো বোনের বাড়ী চলে ...
  • খাগায় নমঃ
    মাঘ এলেই মনে পড়ে শ্রীপঞ্চমীর বিকেলে অপু বাবার সাথে নীলকন্ঠ পাখি দেখতে বেরিয়েছিল।নিজে ও রোজকার রুটিন বদলে ফেলতাম পুজোর দিনপনেরো আগে। স্কুল থেকে রোজ বিকেলে বাড়ি ফিরে খুঁটিয়ে দেখতাম উঠোনের আমগাছটায় মুকুল এলো কিনা, আর গাঁদার চারায় কতগুলো কুঁড়ি এলো, তারপর ...
  • হেলেন
    এমন হয়, প্রায়শই হয়। কথাবার্তায় উঠে আসে কোনও কোনও নাম। আমাদের লেখকের ক্ষেত্রেও তাই হলো। লেখক ও তার বন্ধু হাসানুজ্জামান ইনু সেইদিন রাত আটটা ন’টার দিকে জিন্দাবাজারে হাঁটছিলেন। তারা বাদাম খাচ্ছিলেন এবং বলছিলেন যে রিকাবিবাজার যাবেন, ও সেখানে গুড়ের চা খাবেন।তখন ...

গুরুচণ্ডা৯র খবরাখবর নিয়মিত ই-মেলে চান? লগিন করুন গুগল অথবা ফেসবুক আইডি দিয়ে।

দৈবী

Prativa Sarker

আমাদের শনিদেব তুল্য এ এক স্প্যানিশ দেবী - ঘোর কৃষ্ণবর্ণা, লোল বক্ষ,বীভৎস উজ্জ্বল চক্ষু
- লা সান্তা মুয়ের্তো। শনির দৃষ্টিতে সব ছারেখারে যায়, আবার সুনজরে সর্বসুখ। লা সান্তা মুয়ের্রতোর সামনে নরবলি দেওয়া হয়, সদ্যচ্ছিন্ন রক্তমাখা আঙুল খেতে বাধ্য করা হয় গ্যাবিনো ইগলেসিয়াসের সাড়া জাগানো উপন্যাস জিরো সেইন্টসের নায়ক ফার্নান্দোকে।
কিন্তু এই দেবীর বরাভয় প্রাপ্ত হয় প্রান্তিকতম মানুষজন, গরীবগুর্বো, অসহায় দিন আনি দিন খাই মুটেমজুররা। যতো ছোটখাটো ড্রাগ পেডলার, দোকানী, মুটে মজুর, তাদের সকলের আশ্রয় দেবী মুয়ের্তো।

আমাদের রাজ্যে ঘটছে ঠিক উল্টো। ভীতু সন্ত্রস্ত গরীবের লৌকতা দেবতা ছিনতাই হয়ে যাচ্ছেন দোর্দণ্ডপ্রতাপ ক্ষমতাবানের দ্বারা। ভক্তিতে নয়, ভোটের কারণে।
এ রাজ্যে হনুমানের পর ভয়ানক গুরুত্ববহ শনি মহারাজ। অন্তত সল্ট লেকে তো বটেই।
এইটুকু পড়েই যারা ভাবছেন আমি বাগদেবী (অপর নাম ভারতী) ঘোষের নিন্দে বা স্তুতি করছি, তারা শূন্য পাবেন। ঠিকই এই অভূতপূর্ব পুলিস সুপার সুদিন বা দুর্দিনে পশ্চিম মেদিনীপুরে শনিদেবের পূজার্চনা করেই চলেছেন। কিন্তু আমার পয়েন্ট সেটা নয়।

পয়েন্ট হচ্ছে এই যে বিধান নগর মিউনিসিপালিটির বর্তমান চেয়ারম্যান যে দক্ষতায় সল্ট লেকের যতো বস্তি, দোকান, ঝুপড়ী দুহাতে সাফ করে ফেললেন সেটা আমাকে খুব ইম্প্রেস করেছে এবং আমি ওর ফ্যান হয়ে গেছি। গৌরবর্ণ, অলংকার শোভিত মানুষটির একক চেষ্টায় সল্ট লেক আজ প্রায় লন্ডন। উৎখাত হওয়া সবজি, মাছওয়ালারা পেটের দায়ে ব্লকের ভেতর দোকান দিচ্ছে আর ক্রমাগত হাত বদল হচ্ছে রুপোর চাকতি। শোনা কথা যে রাস্তার ধারে বসলে মোটা অংকের নজরানা দিতে হয়, উৎখাত হয়ে ভেতরে বসলেও তাইই। যতো উৎখাত, ততো পয়সার খেলা।
এক একজন হকারের পেছনে অন্তত চারটি মুখ,এই লক্ষাধিক মানুষ ঈশ্বরের দোরে মাথা কুটছে ভাতের জন্য, এই শীতে ভাঙা ঘরের ওমের জন্য। তবে এসব নিয়ে ভদ্রলোকসুলভ ঔদাসীন্য যতো দেখানো যায়, দেখিয়ে দেওয়া উচিৎ। কতো ফরেইনার আসে, তাদের খাতিরদারি আমাদের অবশ্যকর্তব্য।

কিন্তু এই যে মহাবলী শাসক, তারও হিম্মত হয়নি ফুটপাথ জোড়া শনিমন্দির ভাঙবার। অনেকটা জায়গা জুড়ে টালি বাঁধানো মন্দির প্রাঙ্গণ শনিবার কাঁসর ঘন্টা সহযোগে উদ্দাম পুজো। দেওয়ালে উৎকীর্ণ বলশালী শাসকের নাম, যাতে পে লোডার বা জিসিপি মেশিনের উদ্যত ফণা আপনা হতে নেমে যায়, নুন পড়া জোঁকের মতো। এ তো তাও বাঁধানো মন্দির, প্রতিষ্ঠিত বিগ্রহ, গাছের নীচে বাঁধান বেদীর ওপর সিঁদুররাঙা পাথরগুলোও রেহাই পেয়ে গেছে মন্ত্রবলে !

তাই ভাবছিলাম শাসক যদি ভোটের কারণে ছিনতাই করে নেয় গরীবের লৌকিক দেবতাদের, তাহলে মা সান্তা মুয়ের্তো ছাড়া আর গতি নেই। যে দেবতা বিপদে ভক্তের পাশে দাঁড়ান না, যার অস্তিত্ব নির্ভর করে ক্ষমতাবানের দয়া আর ভোট চক্করের ওপর, তাকে দিয়ে কিই বা হবে !

তবে সাধু সাবধান ! সূর্যতপস্যারত মায়ের গর্ভেই পিতৃতেজে পুড়ে ঝাঁজরা হয়ে গিয়েছিলেন শনি মহারাজ। ওই ঘোর কালো সন্তানের পিতৃত্ব অস্বীকার করে বসলেন সূর্য। মাথায় চড়া খুন নিয়ে এমন শ্যেনদৃষ্টি হানেন শনি, যে স্বয়ং সূর্য ভস্মীভূত হয়ে যান। নিজের বাপকে রেহাই না দেওয়া এই কাঁচাখেগো দেবতার তুষ্টিবিধানে বিচ্যুতি ঘটলে মাথা এবং গদি দুটো নিয়েই টানাটানি হতে পারে।

কিছু ছবি দেবার চেষ্টা করছি। ব্যাপারটা আরো পরিষ্কার হবে তাহলে।

শেয়ার করুন


Avatar: Prativa Sarker

Re: দৈবী

Avatar: Prativa Sarker

Re: দৈবী

Avatar: Prativa Sarker

Re: দৈবী

Avatar: pi

Re: দৈবী

postimage এ যেখানে .jpg আছে, সেই ডায়রেক্ট লিংটা দিতে হবে, ছবি এখানে ডায়রেক্ট দেখতে পাবার জন্য।
Avatar: জারিফা

Re: দৈবী

Avatar: জারিফা

Re: দৈবী

Avatar: জারিফা

Re: দৈবী

Avatar: জারিফা

Re: দৈবী

Avatar: জারিফা

Re: দৈবী

Avatar: দৈবী

Re: দৈবী



আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন