Ramiz Ahamed RSS feed

Ramiz Ahamed এর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেল। আরোরা সাহেব
    দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেল।আরোরা সাহেব।সাল টা ১৯৯৩ / ৯৪।সদ্য বছর ৩ কলেজ ছেড়ে মাল্টিন্যাশনাল চাকরি, চরকির মত সারা দেশ ঘুরে বেড়াচ্ছি। সকালে দিল্লী, বম্বে, মাদ্রাস (তখনো মুম্বাই / চেন্নাই হয় নি) গিয়ে রাতে ফিরে বাড়ির ভাত খাওয়া তখন এলি তেলি ব্যাপার আমার ...
  • মাজার সংস্কৃতি
    মাজার সংস্কৃতি কোন দিনই আমার পছন্দের জিনিস ছিল না। বিশেষ করে হুট করে গজিয়ে উঠা মাজার। মানুষ মাজারের প্রেমে পরে সর্বস্ব দিয়ে বসে থাকে। ঘরে সংসার চলে না মোল্লা চললেন মাজার শিন্নি দিতে। এমন ঘটনা অহরহ ঘটে। মাজার নিয়ে যত প্রকার ভণ্ডামি হয় তা কল্পনাও করা যায় ...
  • এখন সন্ধ্যা নামছে
    মৌসুমী বিলকিসমেয়েরা হাসছে। মেয়েরা কলকল করে কথা বলছে। মেয়েরা গায়ে গা ঘেঁষটে বসে আছে। তাদের গায়ে লেপ্টে আছে নিজস্ব শিশুরা, মেয়ে ও ছেলে শিশুরা। ওরা সবার কথা গিলছে, বুঝে বা না বুঝে। অপেক্ষাকৃত বড় শিশুরা কথা বলছে মাঝে মাঝে। ওদের এখন কাজ শেষ। ওদের এখন আড্ডা ...
  • ছবিমুড়া যাবেন?
    অপরাজিতা রায়ের ছড়া -ত্রিপুরায় চড়িলাম/ ক্রিয়া নয় শুধু নাম। ত্রিপুরায় স্থাননামে মুড়া থাকলে বুঝে নেবেন ওটি পাহাড়। বড়মুড়া, আঠারোমুড়া; সোনামুড়ার সংস্কৃত অনুবাদ আমি তো করেছি হিরণ্যপর্বত। আঠারোমুড়া রেঞ্জের একটি অংশ দেবতামুড়া, সেখানেই ছবিমুড়া মানে চিত্রলপাহাড়। ...
  • বসন্তের রেশমপথ
    https://s19.postimg....
  • ভারতীয় প্রযুক্তিবিদ্যা ও লিঙ্গ অসাম্য
    ভারতের সেরা প্রযুক্তি শিক্ষার প্রতিষ্ঠান কোনগুলি জিজ্ঞেস করলেই নিঃসন্দেহে উত্তর চলে আসবে আইআইটি। কিন্তু দেশের সেরা ইনস্টিটিউট হওয়া সত্ত্বেও আইআইটি গুলিতে একটা সমস্যা প্রায় জন্মলগ্ন থেকেই রয়েছে। সেটা হল ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যার মধ্যে তীব্ররকমের লিঙ্গ অসাম্য। ...
  • যে কথা ব্যাদে নাই
    যে কথা ব্যাদে নাইআমগো সব আছিল। খ্যাতের মাছ, পুকুরের দুধ, গরুর গোবর, ঘোড়ার ডিম..সব। আমগো ইন্টারনেট আছিল, জিও ফুন আছিল, এরোপ্লেন, পারমানবিক অস্তর ইত্যাদি ইত্যাদি সব আছিল। আর আছিল মাথা নষ্ট অপারেশন। শুরু শুরুতে মাথায় গোলমাল হইলেই মাথা কাইট্যা ফালাইয়া নুতন ...
  • কাল্পনিক কথোপকথন
    কাল্পনিক কথোপকথনরাম: আজ ডালে নুন কম হয়েছে। একটু নুনের পাত্রটা এগিয়ে দাও তো।রামের মা: গতকাল যখন ডালে নুন কম হয়েছিল, তখন তো কিছু বলিস নি? কেন তখন ডাল তোর বউ রেঁধেছেন বলে? বাবা: শুধু ডাল নিয়েই কেন কথা হচ্ছে? পরশু তো মাছেও নুন কম হয়েছিল। তার বেলা? ...
  • ছদ্ম নিরপেক্ষতা
    আমেরিকায় গত কয়েক বছর ধরে একটা আন্দোলন হয়েছিল, "ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার" বলে। একটু খোঁজখবর রাখা লোকমাত্রেই জানবেন আমেরিকায় বর্ণবিদ্বেষ এখনো বেশ ভালই রয়েছে। বিশেষত পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গদের হেনস্থা হবার ঘটনা আকছার হয়। সামান্য ট্রাফিক ভায়োলেশন যেখানে ...
  • শুভ নববর্ষ
    ২৫ বছর আগে যখন বাংলা নববর্ষ ১৪০০ শতাব্দীতে পা দেয় তখন একটা শতাব্দী পার হওয়ার অনুপাতে যে শিহরণ হওয়ার কথা আমার তা হয়নি। বয়স অল্প ছিল, ঠিক বুঝতে পারিনি কি হচ্ছে। আমি আর আমার খালত ভাই সম্রাট ভাই দুইজনে কয়েকটা পটকা ফুটায়া ঘুম দিছিলাম। আর জেনেছিলাম রবীন্দ্রনাথ ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

সংখ্যাসংকট

Ramiz Ahamed Rudro

তখন বোধহয় কাঁপা কাঁপা হাতে স্লেটে খড়ি দিয়ে অ আ লিখতে শুরু করেছিলাম, সাথে ঘাস ,পাতা, সাপ ব্যাঙ হিজিবিজি লিখতে লিখতে একদিন মা শিখিয়েছিল ত্রিনয়ন,দশভুজ, আর একটু কারিকুরি দিয়ে তৈরী হয় দুর্গাঠাকুর। তার পাশে খড়ি দিয়ে বাবার এঁকে দেওয়া দুষ্টু অসুর।

তারপর ওয়াটারবটল গলায় ঝুলিয়ে বাবামায়ের হাত ধরে একটা নতুন দেশে গিয়েছি, যেখানে পদবী বিহীন বন্ধুরা রোজ রোজ ব্যাগ পেতে অপেক্ষা করেছে।

অতিশৈশবের গন্ডি পেরোনো, অ্যাডমিশন টেস্টের কড়াকড়ি সামলে
মিশনারী স্কুলের অনুশাসনের তলায় ভীতদৃষ্টিতে পেঁয়াজ, রসুন, আমিষের আঁচড় বাঁচানো বেড়াজাল টপকে টিফিনবক্স পেতে জমেছে বন্ধুদের বৈঠকী, বক্স উপচে পড়া পাটিসাপটা, লুচি, চিড়ের পোলাও এর রূপকথাগুলোর সাথে সাথে জেনেছি অক্ষৌহিনী সেনা কারা,  কৌমুদী গদা আসলে কার,  মেঘের আড়ালে মেঘনাদের যুদ্ধ,  আর অহল্যার পাথর হয়ে যাওয়ার গল্প। তারপর যত্ন নিয়ে ধরে ধরে সংস্কৃত হরফে শ্লোক লিখতে শিখেছি।

বাড়িতে মা পড়তে দিয়েছে রঙিন ছবিওয়ালা বাইবেলের গল্প, যার পাতায় পাতায় কল্পনার বুননের মতো,  আদম-ইভ, যাকোব-যোহন, মরিয়ম-দানিয়েল আর নোয়ার নৌকারা ভেসে বেড়িয়েছে, আবার বাবার সাথে কোরানের বঙ্গীয় অনুবাদের মতো বই নিয়ে ও বাড়ি ফিরেছি।

মনখারাপেরা এসে জমা হয়, যখন প্রফেসরের দোল দিওয়ালি দুর্গাপুজোর ভীড়ে............. নাহ!  ঈদটা নেই। তার মাঝে বন্ধুদের মনে করানো সিমাইয়ের প্রত্যাশা।
কলেজে ডিপার্টমেন্টে চেটেপুটে নেওয়া স্বাদ, গন্ধ। ওদের এগিয়ে দেওয়া স্যান্ডউইচ, নুডলস, ফ্রায়েডরাইসের মিশেল।

আবার কলেজ চ্যাপেলে আমায় হাসিমুখে ওয়েলকাম করে ওরশীপ টিমের মেম্বাররা, বাইবেল উপহার দেয়। অপলক হয়ে  শুনি যীশুর গল্প। আত্মোৎসর্গ , ক্ষমা করার গল্প।
প্যান্ডেলে দুর্গাঠাকুর দেখে বের হতে হতে যে অনুভূতিটা হয়, 'ভালো রেখো, মা'। ঈদের নামাজে সেজদা যাওয়ার সময় ও মনে হয় আল্লাহ শুধু শান্তির কথা বলেছেন, বলেছেন সমর্পিত হতে।

সিল্যুয়েট দেখতে পাই........
কাঁপা কাঁপা হাতে ফুলের কুচি, বেলপাতা
........বীণাপুস্তক রঞ্জিত হস্তে।
 নিস্তারপর্বের ভোজ, প্রভু টিফিনবক্স খুলে পরোটা
 আর আলুভাজা ভাগ করছেন।
কামড়ানো আপেলের ভাগ বসানো উপবীতধারী বন্ধুর মুখ,
এর বাইরেটুকু ভীষণ অন্ধকার!


শেয়ার করুন


Avatar: রৌহিন

Re: সংখ্যাসংকট

সুন্দর। এসেন্স
Avatar: aranya

Re: সংখ্যাসংকট

বাঃ। ভাল লাগল এই লেখা
Avatar: জি

Re: সংখ্যাসংকট

বেশ লাগল


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন