রৌহিন RSS feed

রৌহিন এর খেরোর খাতা। হাবিজাবি লেখালিখি৷ জাতে ওঠা যায় কি না দেখি৷

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • বিষয় জিকেসিআইইটি - এপর্যন্ত
    নিয়মের অতল ফাঁক - মালদহের গণি খান চৌধুরী ইনস্টিটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি - প্রথম কিস্তি (প্রকাশঃ 26 July 2018 08:30:34 IST)আজব খবর -১ ২০১৬ সালে একটি সরকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পাশ করা এক ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্র ভারতীয় সেনায় ইঞ্জিনিয়ার পদে যোগ ...
  • "নাহলে রেপ করে বডি বিছিয়ে দিতাম.."
    গত পরশু অর্থাৎ স্বাধীনতা দিবসের দিন, মালদা জিকেসিআইইটি ক্যাম্পাসে আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের বাইকবাহিনী এসে শাসিয়ে যায়। তারপর আজকের খবর অনুযায়ী তাদেরকে মারধর করে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা চলছে। ছাত্রদের বক্তব্য অনুযায়ী মারধর করছে বিজেপির সমর্থক ...
  • উত্তর
    [ মূল গল্প --- Answer, লেখক --- Fredric Brown। ষাট-সত্তর দশকের মার্কিন কল্পবিজ্ঞান লেখক, কল্পবিজ্ঞান অণুগল্পের জাদুকর। ] ......সার্কিটের শেষ সংযোগটা ড্বর এভ সোনা দিয়ে ঝালাই করে জুড়ে দিলেন, এবং সেটা করলেন বেশ একটা উৎসবের মেজাজেই । ডজনখানেক দূরদর্শন ...
  • জাতীয় পতাকা, দেশপ্রেম এবং জুতো
    কাল থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু পোস্ট দেখছি, কিছু ছবি মূলত, যার মূল কথা হলো জুতো পায়ে ভারতের জাতীয় পতাকাকে সম্মান জানানো মোটেও ঠিক নয়। ওতে দেশের অসম্মান হয়। এর আগে এরকমটা শুনিনি। মানে ছোটবেলায়, অর্থাৎ কিনা যখন আমি প্রকৃতই দেশপ্রেমিক ছিলাম এবং যুদ্ধে-ফুদ্ধে ...
  • এতো ঘৃণা কোথা থেকে আসে?
    কাল উমর খালিদের ঘটনার পর টুইটারে ঢুকেছিলাম, বোধকরি অন্য কিছু কাজে ... টাইমলাইনে কারুর একটা টুইট চোখে পড়লো, সাদামাটা বক্তব্য, "ভয় পেয়ো না, আমরা তোমার পাশে আছি" - গোছের, সেটা খুললাম আর চোখে পড়লো তলায় শয়ে শয়ে কমেন্ট, না সমবেদনা নয়, আশ্বাস নয়, বরং উৎকট, ...
  • সারে জঁহা সে আচ্ছা
    আচ্ছা স্যার, আপনি মালয়েশিয়া বা বোর্ণিওর জঙ্গল দেখেছেন? অথবা অ্যামাজনের জঙ্গল? নিজের চোখে না দেখলেও , নিদেনপক্ষে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকের পাতায়? একজন বনগাঁর লোকের হাতে যখন সে ম্যাগাজিন পৌঁছে যেত, তখন আপনি তো স্যার কলকাতার ছেলে - হাত বাড়ালেই পেয়ে যেতেন ...
  • ট্রেন লেট্ আছে!
    আমরা প্রচন্ড বুদ্ধিমান। গত কয়েকদিনে আমরা বুঝে গেছি যে ভারতবর্ষ দেশটা আসলে একটা ট্রেনের মতো, যে ট্রেনে একবার উদ্বাস্তুগুলোকে সিটে বসতে দিলে শেষমেশ নিজেদেরই সিট জুটবে না। নিচে নেমে বসতে হবে তারপর। কারণ সিট শেষ পর্যন্ত হাতেগোনা ! দেশ ব্যাপারটা এতটাই সোজা। ...
  • একটা নতুন গান
    আসমানী জহরত (The 0ne Rupee Film Project)-এর কাজ যখন চলছে দেবদীপ-এর মোমবাতি গানটা তখন অলরেডি রেকর্ড হয়ে গেছে বেশ কিছুদিন আগেই। গানটা প্রথম শুনেছিলাম ২০১১-র লিটিল ম্যাগাজিন মেলায় সম্ভবত। সামনাসামনি। তো, সেই গানের একটা আনপ্লাগড লাইভ ভার্শন আমরা পার্টি ...
  • ভাঙ্গর ও বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যবস্থা প্রসঙ্গে
    এই লেখাটা ভাঙ্গর, পরিবেশ ও বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যবস্থা প্রসঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে নানা স্ট্যাটাস, টুকরো লেখায়, অনলাইন আলোচনায় যে কথাগুলো বলেছি, বলে চলেছি সেইগুলো এক জায়গায় লেখার একটা অগোছালো প্রয়াস। এখানে দুটো আলাদা আলাদা বিষয় আছে। সেই বিষয় দুটোয় বিজ্ঞানের সাথে ...
  • বিদ্যালয় নিয়ে ...
    “তবে যেহেতু এটি একটি ইস্কুল,জোরে কথা বলা নিষেধ। - কর্তৃপক্ষ” (বিলাস সরকার-এর ‘ইস্কুল’ পুস্তক থেকে।)আমার ইস্কুল। হেয়ার স্কুল। গর্বের জায়গা। কত স্মৃতি মিশে আছে। আনন্দ দুঃখ রাগ অভিমান, ক্ষোভ তৃপ্তি আশা হতাশা, সাফল্য ব্যার্থতা, এক-চোখ ঘুগনিওয়ালা, গামছা কাঁধে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

আচ্ছে দিন - ১

রৌহিন

স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া সেভিংস ব্যাঙ্কের সুদের হার ৪% থেকে কমিয়ে ৩.৫% করল সম্প্রতি। এবং যা শোনা গেল, স্টেট ব্যাঙ্ক একা নয়, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশে একে একে সব ব্যাঙ্কেই এটা হবে – অর্থাৎ এখন থেকে আমরা প্রায় সবাই আমাদের গচ্ছিত ধনে প্রাপ্য সুদ কম পাব। তবে ওই – “প্রায়” কথাটা ব্যবহার করতেই হল – সকলের কষ্ট তো সমান হয় না। কিছু দুঃস্থ মানুষ, যাদের সেভিংস ব্যাঙ্কে এক কোটি টাকার বেশী ব্যালান্স আছে, তাদের সুদ কমবে না – আহা, সুদ কমিয়ে নিলে সে বেচারারা খাবে কি? লন্ডনে পালাবার প্লেন ভাড়া দেবে কী করে? যাক গে যাক – ওসব গরীব-গুর্বোদের কথা ছাড়ুন – আমরা দুই হাত ভরে আর কী কী লাড্ডু পেলাম একটু দেখি। এই ঘোষণার দিন দুয়েক আগেই পিপিএফ এর সুদ ৭.৫% থেকে ৭% হয়ে গেছে। এবং রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ঘোষণা করেছে এখানেই শেষ নয় – সর্বস্তরে সুদের হার আরো একবার কমানো হইবে। কারণ দেশ আগে বাড়ছে – আমাদের মুদ্রাস্ফীতি কমেছে সম্প্রতি। হে হে, ঠিকই পড়েছেন – মুদ্রাস্ফীতি কমেছে। আপনার সুদ কমে গেছে কে বলল? আপনি আসলে “বেশীই” পাচ্ছেন। ঘাবড়াবেন না স্যার। আপনি হয়তো বাজারে গিয়ে দেখছেন, টমেটো ১২০ টাকা, বেগুন, পটল, ঝিঙে ৪০ টাকা, শসা ৬০, ওষুধের দোকানে গিয়ে দামের খেই খুঁজে পাচ্ছেন না, কিন্তু তাই বলে ধোঁকা খাবেন না – দেখে নিন, গাড়ির দাম কমে গেছে। ওলা উবেরে ছাড় পাচ্ছেন বেশী। এবং এসবের পরেও যদি বিশ্বাস না হয় যে মুদ্রাস্ফীতি কমেছে, আপনাকে অবশ্যই একবার মনে করিয়ে দেব যে সীমান্তে কিন্তু জওয়ানেরা ---
সেই একই দিনে আরো একটা খবর পাওয়া গেল, গ্যাস সিলিন্ডারে ভর্তুকি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এবং শুধু তা-ই নয়, এখন থেকে আগামী মার্চ অবধি প্রতি মাসে সিলিন্ডার পিছু ৪ টাকা হারে দাম বাড়বে (এটায় আমি এখনো ঘেঁটে আছি যে বেস প্রাইস কোনটা? এখনো একেক মাসে একেক রকম দাম দিই তো সিলিন্ডারের!)। কিছু কিছু ধান্দাবাজ বিপিএল মাল জন ধন যোজনায় গ্যাস ফ্যাস কিনে বেশ ভালই ব্যবসা চালাচ্ছিল – এবার তাদের কালা ধোনে আবার টান। দেখ কেমন লাগে। সিয়াচেনের তাপমাত্রা জানেন কি? সীমান্তে সেনারা মরছে আর আপনার গ্যাসে ভর্তুকি না হলেই ফাটছে? আপনি কি দেশদ্রোহী? আপনি কি গরু খান?
শোনো দাদারা – কথা বাড়িয়ে লাভ নেই – দেশ আগে বাড়ছে। আপনারা পিছিয়ে পড়ছেন। মোদী আগে বাড়ছেন, অমিত বাড়ছেন। মুকেশ বাড়ছেন, গৌতম বাড়ছেন, অনিল বাড়ছেন, বিজয় বাড়ছেন, হর্ষ বাড়ছেন। এদের জন্য প্রচুর প্রচুর টাকার দরকার – সে টাকা আপনি দেবেন না তো কে দেবে? দেশকে ভালোবাসেন তো নাকি? দেশদ্রোহী তো নন যে পাকিস্তানে চলে যাবেন (ওখানে অত জায়গাও হবে না)। কাজেই এখন একটু এসব সুদ, ভর্তুকির নোংরা লোভ আপনাকে ছাড়তে হবে বই কি। সেটা মেনে নিন ভালয় ভালয় – এদের বাড়তে দিন। না মানলে মন্দির ওখানেই বানাবো। মানলে তো ওখানেই বানাবো।

শেয়ার করুন


Avatar: রৌহিন

Re: আচ্ছে দিন - ১

স্যার, আমার হাঁটুতে বাতের ব্যথা। একটু পিছিয়ে পড়ছি। অগ্রগতির রোডরোলারে চিঁড়ে চ্যাপ্টা। একটু বাতাস চাইছে ফুসফুস। সিয়াচেনের লাশে দুর্গন্ধ নেই, আমার পচা লাশে গন্ধ ছড়ায় স্যার।
Avatar: pi

Re: আচ্ছে দিন - ১

আচ্ছের হদ্দমুদ্দ।

তা ভক্তজন কি এখনো ভক্তিতে গদগদ হয়ে চোখ বুঁজে করজোড়ে নমোনমো করেই চলেছেন?
Avatar: নমো

Re: আচ্ছে দিন - ১

বিলকুল করে চলেছেন। মোদির পপুলারিটি একচুলও কমছেনা।
Avatar: জি

Re: আচ্ছে দিন - ১

আহা! কারো দশ কোটির স্যুট তো কারো তিনশো শতাংশ সম্পত্তি না বাড়লে কী করে আর আচ্ছেদিন বোঝা যাবে!
Avatar: pi

Re: আচ্ছে দিন - ১

কিন্তু কেন? এগুলো নিয়ে তো নিজেদের এবার যথেষ্ট অসুবিধে হবার কথা। এখানে অন্যের কালোধন যাবার আনন্দ নেই, কাশ্মীরের পাথর ছোঁড়া বন্ধ হবার গাজরে প্রলুব্ধ হওয়া নেই। তো, এখন কী? শুধুই সিয়াচেনে স্বার্থত্যাগ?
Avatar: pi

Re: আচ্ছে দিন - ১

এই যে।উত্তর পেলাম।হোয়াতে ঘুরছে

'

গতকাল পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি পত্রিকাতে দেখলাম বড়ো বড়ো হেডলাইন "রান্নার গ্যাসে ভর্তুকি তুলে দিতে চাই মোদী সরকার"

ব্যাস, সকাল বেলা হাওড়া-বর্ধমান লোকালে খন্যান ষ্টেশনে চেপেই দেখছি সব ডেইলি প্যাসেঞ্জাররা মোদীর গুষ্টির ষষ্ঠী পুজো করছে ।
বলি, দাদা ভর্তুকি দিয়ে আর কতদিন দেশ চলবে, জনসংখ্যা তো ১৩০ কোটি ছুঁই ছুঁই,
আপনারা ২ টাকায় চাল নেবেন সেখানেও ভর্তুকি,
সরকারের টাকায় বাড়ী চাইবেন,
সরকার আপনার মা-বোনের ইজ্জত বাঁচাতে ভর্তুকি দিয়ে শৌচাগার বানিয়ে দেবে,
সরকার আপনার রাতে যাতে ঘুম হয় তার জন্য কম পয়সায় ভর্তুকি যুক্ত ইলেকট্রিক কানেকশন দেবে,
সরকার আপনার বিল বাঁচাতে ভর্তুকি দিয়ে এলইডি বাল্ব দেবে,
এমনকি সরকার আপনাকে রান্নার গ্যাস টাও ভর্তুকিতে দেবে যাতে আপনার মা, বৌয়ের চোখের জলটা না পড়ে ধোঁয়ার জন্য।।।।।

সরকার মানে কি রাজনৈতিক দল, নাকি সরকার মানে দেশ?

বলি, আপনারা তো রোজগার করে ব্যাঙ্কে, ইনসুরেন্সে টাকা জমা দেন যাতে আপনার ভবিষ্যত প্রজন্ম সুখে বাস করতে পারে, তাহলে সরকার যদি ভর্তুকি তুলে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য সুযোগ সুবিধা দিয়ে যাওয়ার কথা চিন্তা করে সেখানে আপনাদের এতো ফাটার কি আছে?

যদিও গ্যাসের ভর্তুকি তুলে দেওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান, যাদের বাৎসরিক আয় ১০ লক্ষ টাকার উপরে তাদের রান্নার গ্যাসের ভর্তুকি তুলে দেওয়া হবে, এই আইন সবার জন্য প্রযোজ্য নয় ।

কংগ্রেস ২টাকায় চাল, বিনামূল্যে জল দিয়ে দেশের গুষ্টির ষষ্ঠী পুজো করে দিয়ে গেছে ভোটব্যাঙ্ক মজবুত করার জন্য, অন্যদিকে সিপিএমের ২ লক্ষ কোটি টাকা ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে মমতাময়ী মা জননী ১ লক্ষ ৬৫ হাজার কোটি টাকা আরোও দেনা করে ভোটব্যাঙ্ক মজবুত করার জন্য বিনামূল্যে সাইকেল, ২৫ হাজার করে নগদ প্রনামী, বেকার ভাতা, ইমাম ভাতা দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের গুষ্টির পিন্ডি চটকাচ্ছেন আর আপনারা হাততালি দিয়ে বলছেন "উন্নয়নের জোয়ার ব়ইছে"।।।।

বলি, ঋণ করে মাংস ভাত কতদিন খাবেন? একদিন তো আপনার মাংসের দোকানের ঋন মেটাতে আপনার সন্তানদের সোয়াবিন ভাত জুটবে না।।।।

আমি বলিনি যে কন্যাশ্রী, সবুজ সাথী প্রকল্প খারাপ, তাই বিচার বিবেচনা করে যোগ্যদের দেওয়া উচিত ছিল অযথা কোটিপতিদের স্কুটি চাপা মেয়েদের সাইকেল টা না দিলেও চলতে, কিছু মেয়ে তো কন্যাশ্রীর টাকা রেড মি নোট ৪ কিনে ঘুরছে । যদি ওই টাকা প্রকৃত গরীব পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হত তাহলে অযথা এতো ঋন করতে হত না।।।।।

ভর্তুকি দিয়ে দেশ চলতে পারে না, এমনকি মানুষের ভোট় জিতে নেতা-মন্ত্রীদেরও ভর্তুকি বন্ধ করা উচিত, যতদিন না মানুষকে সাবলম্বী গড়ে তুলতে পারা যাবে ততদিন ভারতবর্ষের বুকে গরীব নামক শব্দটা জীবিত থাকবে ।

গ্যাসের ভর্তুকির টাকা কর্মসংস্থানের কাজে লাগুক, ২ টাকার চালের ভর্তুকির টাকা কৃষকদের ঋন মুকুবের কাজে লাগুক, হজ যাত্রার ভর্তুকির টাকা প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কাজে লাগুক, নেতা-মন্ত্রীদের দেওয়া ভর্তুকির টাকা জনসেবায় কাজে লাগুক, তবেই ভারত শ্রেষ্ঠ আসনে বসবে।।।।।

আমি দেশের জন্য ৮ঘন্টার বদলে ১০ ঘন্টা খাটতে রাজী আছি, আমার সরকারী ভর্তুকি চাই না, আমি চাই ভর্তুকি তুলে দিয়ে ভারতকে সর্বশক্তিমান রাষ্ট্রে পরিণত করা হোক, যাতে ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে শুনতে না হয় ভর্তুকি খেয়ে খেয়ে আমাদের পূর্বপুরুষরা আমাদের ভবিষ্যত নষ্ট করে দিয়ে গেছে ।

বিল গেটসের সেই বিখ্যাত লাইন - গরীব হয়ে জন্মানোটা অপরাধ নয়, গরীব হয়ে মরাটা অপরাধ, তাই প্রত্যেক ভারতবাসীর উচিত মানসিকতা পরিবর্তন করে ২ টাকার চাল, তেলের ভরসা না করে সঠিক কর্ম করা যাতে ভর্তুকির ভরসা না করতে হয় ।

ভবিষ্যত প্রজন্মের কে দেখিয়ে দিয়ে যাওয়া উচিত আমাদের যে আমরা নিজেরা নিজেদের মানসিকতা পরিবর্তন করতে পারি রাষ্ট্রকে শক্তিশালী করার জন্য।।।।।

বন্দেমাতরম, ভারত মাতা কি জয়, জয় হিন্দ ় (োপিএদ)'
Avatar: de

Re: আচ্ছে দিন - ১

ক্ষীই ভক্তি!!

সরকারের আবার টাকা কিসের, ও টাকা তো আমাদেরই দেওয়া ট্যাক্সের টাকা!
Avatar: de

Re: আচ্ছে দিন - ১

আর হ্যাঁ, মন্দিরের ফান্ড, গয়নাগাঁটি ইঃ, সমস্ত ধর্মীয় সংগঠনের টাকা, সেই সুইস ব্যাংকের কালো টাকা, রাজনৈতিক দলগুলোর ফান্ড - এসব নিয়ে তো কোন কথা শুনি না। যত চাপ সাধারণ মানুষের ঘাড়ে বন্দুক রেখে সামলানোর চেষ্টা - আচ্ছে দিন না ছাই!
Avatar: avi

Re: আচ্ছে দিন - ১

আহা, কষ্ট না করলে সোনার ভবিষ্যৎ আসবে কোদ্দিয়ে? লং টার্মে প্রচুর গেইন। ঠিক সত্তর বছর অপেক্ষা করেই দেখুন না।
Avatar: দ

Re: আচ্ছে দিন - ১

হুঁ রাজ্যে চৌতিরিশ আর কেন্দ্রে সত্তর বচ্ছর টাইম দিতেই হবে
Avatar: π

Re: আচ্ছে দিন - ১

এগুলো কি এত গা সওয়া রুটিন ঘটনা হয়ে গেছে যে আর খবর, হইচইও হচ্ছেনা!


Retweeted Md Asif Khan (@imMAK02):

3 more Muslims are killed by Cow Terrorists.This time in Udupi, Karnataka

Hussain (65yo) has been doing cattle business since last 30 years. He had valid certificate for it.

Last night he and his 2 friends were attacked by Cow Terrorists .

Whole India is busy in #bypoll https://t.co/l6BXHiKozx
Avatar: π

Re: আচ্ছে দিন - ১

Avatar: π

Re: আচ্ছে দিন - ১

Avatar: paps

Re: আচ্ছে দিন - ১

নমোর কাছে আমাদের মিনতি'ওয়হ বুরা দিন ওয়াপস কিজিয়ে স্যর'।
Avatar: pi

Re: আচ্ছে দিন - ১

Avatar: কল্লোল

Re: আচ্ছে দিন - ১

বিজেপি যে অতি খারাপ, সে তো জানাই। কিন্তু আমার কেন জানি মনে হচ্ছে, এবার বিজেপি হারবে, কং-ও নানা পার্টির জোট আসবে। ব্যাঙকে সুদ বাড়বে কি? গ্যাসের দাম কমবে কি? মানে, বিজেপি আসার আগের মত হবে কি ? বাকি তখন আবার কিছু দিন স্বার্থ ত্যাগের গল্প শুনবো।
Avatar: PT

Re: আচ্ছে দিন - ১

যেনারা সবচাইতে নাপাচ্চেন বিজেপিকে হটানোর জন্য তেনাদের ৭ বছরেও তো এই অব্স্তা!! কর্মসৃষ্টির ক্যাঁথায় আগুন দিয়ে এখানে ক্ষমতায় এসেছে যারা, তারা দিল্লীতে ক্ষমতা পেয়ে কি করবে?

"'একবার বালি আর খাদানগুলো ঘুরে দেখুন..অল্পবয়সি ছেলেরাও সারাদিন মদ খাচ্ছে।’

ছেলেরা কি করে জানতে চাইলে ফুঁসে উঠলেন দুই বুড়ি। "কী আবার করবে? ঘরে বসে থাকে। মুনিষ খাটে" কেন, ১০০ দিনের কাজ হয়নি এ গ্রামে? 'হবেনা কেন? কিন্তু আমাদের ছেলেরা কিছুই পায়নি। ঠিকাদার বাইরে থেকে লোক এনে সব কাজ করাল।'"

"ছত্রধর মাহাতোর ছেলে ৭০০০ টাকার মাইনের মাত্র ৪০০০ টাকা পায় আর রঘুনাথ্পুর শিল্পতালুকে কোন কারখানাই আসেনি।"

http://www.epaper.eisamay.com/Details.aspx?id=40624&boxid=14525828

লক্ষীকান্তপুর, চম্পাহাটি, মুর্শিদাবাদ বা সুন্দরবন থেকে এসে দক্ষিণ কলকাতায় রিকসা চলাচ্ছে যারা তাদের সঙ্গে কথা বলেও প্রায় একই চিত্র পেয়েছি।
Avatar: pi

Re: আচ্ছে দিন - ১

অভিজিতের পোস্ট।


'Last night, petroleum minister Mr. Dharmendra Pradhan had a meeting with ONGC (Oil and Natural Gas Commission) and requested to sell crude at lower price. ONGC denied and said that due to Govt. pressure, they had to buy 80% share of the loss-making Gujarat State Peteoleum Corporation by paying 7700 CR. which has made a huge deficit in their balance sheet. As a result, they are not in a position to reduce the fuel price. ONGC was forced to buy Gujarat State Petroleum Board which is in huge crisis thanks to the financial mismanagement by then CM Mr. Modi.

Essentially we are now paying price for the image makeover of a CM who was projected as "Vikas Purush". By the way, has anyone recently heard about Gujarat Model in any of the state election campaigns? Why that got buried so abruptly?


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন