Zarifah Zahan RSS feed

Zarifah Zahanএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • মন ভালো নেই
    ভালোবাসায় আদর আসে,সোহাগ আসে,মন ভেঙে যাওয়া আসে, যন্ত্রণা আসে, বিরহ জেগে থাকে মধুরাতে, অপেক্ষা আসে, যা কখনো আসেনা, তার নাম 'জেহাদ'। ভালোবাসায় কোনো 'জেহাদ' নেই। ধর্ম নেই অধর্ম নেই। প্রতিশোধ নেই। এই মধ্যবয়সে এসে আজ রাতে আমার সেই হারিয়ে যাওয়া বাংলা কে মনে ...
  • ৯০তম অস্কার মনোনয়ন
    অনেকেই খুব বেশি চমকে গেলেও আমার কাছে খুব একটা চমকে যাওয়ার মত মনে হয়নি এবারের অস্কার মনোনয়ন। খুব প্রত্যাশিত কিছু ছবিই মনোনয়ন পেয়েছে। তবে কিছু ছবি ছিল যারা মনোনয়ন পেতে পারত কোন সন্দেহে ছাড়াই। কিন্তু যারা পাইছে তারা যে যোগ্য হিসেবেই পেয়েছে তা নিঃসন্দেহে বলা ...
  • খেজুরবটের আত্মীয়তা
    খুব শান্তি পাই, যখন দেখি কালচারগুলো মিলে যাচ্ছে।বিধর্মী ছেলের হাত ধরে ঘুরে বেড়াচ্ছো শহরের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্ত। দুটি হাত ছোঁয়া সংবেদী বিন্দুতে ঘটে যাচ্ছে বনমহোৎসব। দুটি ভিন্ন ধর্মের গাছ ভালোবাসার অক্সিজেন ছড়িয়ে দিচ্ছে। যেন খেজুর বটের অপার ...
  • ম্যাসাজ - ২
    কবি অনেকদিন হতেই “জীবনের ধন কিছুই যাবে না ফেলা” বলে আশ্বাস দিয়ে এলেও ছোটবেলায় হালকা ডাউট ছিল কবি কোন ধনের কথা বলেছেন এবং ফেলা অর্থে কোথায় ফেলার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন? ধন যে ফ্যালনা জিনিস নয়, সেটা আবার নিমোর ছেলেদের থেকে ভালো কে বুঝত! কিন্তু সেই নিয়ে কাব্যি ...
  • মম দুঃখ বেদন....
    সেদিন, অঝোর ধারে কাঁদতে কাঁদতে বাবার চেয়ারের হাতল ধরে মেঝেতে বসে পড়েছি। দৃশ্যত শান্ত বাবা, খানিকক্ষণ কাঁদার সুযোগ দিলেন। এ দুটি বাক্যে ভেবে নেবার কোনো কারণই নেই, বাবা আর আমার সম্পর্ক অতি সুমধুর ও বোঝাপড়ার। বরং তার অব্যবহিত কয়েক মাস আগে পর্যন্তও উত্তপ্ত ...
  • হিন্দু স্কুলের জন্মদিনে
    হিন্দু স্কুলের জন্মদিনেআমাদের স্কুলের খেলার মাঠ ছিল না। থাকার মধ্যে ছিল একটা উঠোন, একটা লাল বেদী আর একটা দেবদারু গাছ। ওই লাল বেদীটায় দাঁড়িয়ে হেডস্যার রেজাল্ট বলতেন। ওই উঠোনটায় আমরা হুটোপাটি আর প্রেয়ার করতাম। আমাদের ইস্কুলের প্রেয়ার ছিল জনগনমন। তখনো ...
  • জার্মানী ডাইরী-১
    পরবাস পর্ব:অদ্ভুত একটা দেশে এসে পড়েছি! এদেশের আকাশ সবসময় মেঘাচ্ছন্ন.. সূর্য ওঠেই না বললে চলে! হয় বৃষ্টি নয়তো বরফ!!বর্ষাকাল আমার খুবই প্রিয়.. আমি তো বর্ষার মেয়ে, তাই বৃষ্টির সাথে আমার খুব আপন সম্পর্ক। কিন্তু এদেশের বৃষ্টিটাও বাজে! এরা অতি সন্তর্পণে ঝরবে! ...
  • মাতৃরূপেণ
    আমার বাবাকে জীবনকালে , আমার জ্ঞান ও বিশ্বাসমতে, থানায় যেতে হয়েছিলো একবারই। কোনো অপরাধ করায় পুলিশ ধরে নিয়ে গিয়েছিলো তা নয়, নিছক স্নেহের আকুল টান বাবাকে টেনে নিয়ে গিয়েছিলো 'মামা'দের মাঝে। 2007 সাল। তখন এপ্রিল মাস। 14ই মার্চ ঘর ছেড়ে মাসতুতো বোনের বাড়ী চলে ...
  • খাগায় নমঃ
    মাঘ এলেই মনে পড়ে শ্রীপঞ্চমীর বিকেলে অপু বাবার সাথে নীলকন্ঠ পাখি দেখতে বেরিয়েছিল।নিজে ও রোজকার রুটিন বদলে ফেলতাম পুজোর দিনপনেরো আগে। স্কুল থেকে রোজ বিকেলে বাড়ি ফিরে খুঁটিয়ে দেখতাম উঠোনের আমগাছটায় মুকুল এলো কিনা, আর গাঁদার চারায় কতগুলো কুঁড়ি এলো, তারপর ...
  • হেলেন
    এমন হয়, প্রায়শই হয়। কথাবার্তায় উঠে আসে কোনও কোনও নাম। আমাদের লেখকের ক্ষেত্রেও তাই হলো। লেখক ও তার বন্ধু হাসানুজ্জামান ইনু সেইদিন রাত আটটা ন’টার দিকে জিন্দাবাজারে হাঁটছিলেন। তারা বাদাম খাচ্ছিলেন এবং বলছিলেন যে রিকাবিবাজার যাবেন, ও সেখানে গুড়ের চা খাবেন।তখন ...

গুরুচণ্ডা৯র খবরাখবর নিয়মিত ই-মেলে চান? লগিন করুন গুগল অথবা ফেসবুক আইডি দিয়ে।

টেস্টনি দাদাবাবু

Zarifah Zahan


দিব্যি নাইটির ডানদিকের খুঁটটা চিবিয়ে চিবিয়ে সন্ধ্যে সাতটায় কুসুম আজ দুলবে কি দুলবেনা টেনশনটা সবে জমে উঠেছে ওমনি পাঁচফোড়নে পেয়াঁজ ঢাললে পাক্কা সাড়ে ছয় মিনিটের ব্রেক! এটা সবে ট্রেলার। এরপর দোলনার দ' টুকুর মাথায় তেল ঘষতে না ঘষতেই আবার ট্রেলার বাবাজীবনের জড়ুয়া ভাইটি চলে আসবেন ঠিক। এক্কেরে ছাদে জামাকাপড় মেলা দেখলেই যেমন বৃষ্টি দিদিমণির কান ভরে ওঠে, বুকের ভেতর আনচান করে জেলুসিল জ্বালা, ঠিক সেরকম পিরীত আর কী। তা দিদিমণিকে দেখলেই জনগণের যে হারে পোয়েটিক প্রেম উঠলে ওঠে, বারো পুরুষের খেরোর খাতা মায় সেদিনের শব্দছককেও ঘাড়ে ধরে হরিমটর ফাটায় তাতে দিদিমণির রেলা বাড়ারই কথা। হাবভাবের ডাকসাইটে চিরসুন্দরী। সুচিত্রা সেন ও বৃষ্টি, বাঙালির জাতীয় প্রেমিকা। অতএব এসবে পেত‍্যয় না দিয়ে বরং নিউজ ব্রেকই সই।

সবে সবে গ্যাসের ভর্তুকি কমায় কীভাবে হাইড্রেনের পাশে স্বচ্ছ ভারত ট্যাক্স বাঁচিয়ে যা জমে তাতে মাসের খাতার এই সেকশনটা উইপোকার হাত থেকে বাঁচাবো ছক কষতে কষতেই শুনি ঘোষণা এসবিআই ম্যাজিক দেখাবে আগামীদিনে-মালিয়ার তুড়ি, সুদ থোড়ি, জনতার টাকা চুরি। বেশ একখান কে সি নাগের পাটিগণিতের বাঁদরের মতো হাল দিকি। 'জয় শ্রীরাম' 'ভারত মাতা কি জয়' বলে টলে যদিও বা এক ইঞ্চি উঠলাম বাঁশে তো সে এমনই তেলে দেশভক্তিতে সুরুৎ সিয়াচেনের তাপমাত্রা খেয়াল করবো কী ম্যাজিকের ধাক্কায় 'পা পিছলে আলুর দম' ( ভেজই সই, কাঁহাতক সনাতন মাছওয়ালা আর রোববারের খাসির মুখ ভেবে দুঃখে, পাকিস্তান যাওয়ার বিনা টিকিটের অফার ঢেলে আহুতি দেওয়ার কী দরকার!)। এরপর লেবেন্চুস ফেলে যতই 'আচ্ছে দিন' এর ভাব সম্প্রসারণ করতে যাই ততই দেখি ভাবের ঘরে চুরি।

অগত্যা ফেবুই ভরসা। ফেকুগণকে স্প্যাম এ পাঠিয়ে সবে ভাবতে বসেছি হ্যাশট্যাগ 'দেশপ্রেম' লিখে শেয়ার করলে স্ক্রিনের উপর কে কে দৌড়বে ওমনি দেখি বাজারে ধর্মের ষাঁড় ( গরু বলিনি, খামোকা মুন্ডপাত করবেন না তো বাপু!) হয়ে এয়েচেন টেস্টনি দাদা। সে কী আয়োজন।
একবার দিকি আমি দুগ্গা, আহ্লাদে আটখানা হয়ে প্যারাশুটে ভাসবো কি ভাসবোনা ভাবছি ওমনি হামাগুড়ি দিয়ে ইদিক উদিক ঘুরে দেখি দুগ্গার দোকান বসে গেছে এককোণে। সে কী ভিড়। কত শত দুগ্গা। অতএব বেল্ট খুলে প্যারাশুট গুছিয়ে টুকটুক এগোলাম। নিজেকে পদীপিসি দেখে বাক্স কোথায় খুঁজছি ওমনি চোখ চলে গেল পাশের দোকানে। এইবারে দেখি মাধবীর মুখোশ বরাদ্দ আমার। কেলো করেচে! শেষে কিনা ঠাকুরপো নিয়ে টানাটানি! ঘোমটা টেনে এগিয়ে দেখি হুদ্দাড় কাঠবুড়ো হয়ে গেছি ( তা চিরকাল রসকসহীন বলে একটা দুর্নাম ছিল থুড়ি আছে বৈকি)। এমন রেটে খোলসত্যাগ দেখেই কিনা কে জানে মতিগতি না ঠাউরাতে পেরে( এটা স্রেফ নিজেকে দেওয়া সান্ত্বনা পুরস্কার) দাদাবাবু ঘোষণা করলেন আগামী ১ বছরে আমার দ্বারা কিস‍্যুই হবেনা, শুধু ফুটপাথে ঘুরে বেড়াবো। বাজার আর ফুটপাথের দূরত্ব যে চিনা ফোনে পেটিএম ইউস করে চিন বয়কটের চিনচিনে দাবিমার্কাই উজ্জীবিত সে ব্যাটা টেস্টনি না টেস্ট করেই বাদাম চিবিয়ে তুড়ি মেরে বুঝে গেছে সেটা হজম করতে নাইটির বাঁখুঁট টাও জিম্মায় গেল চিবুনিপ্রেমের কোলে।

এই সই। বাঁশের মাথায় হাঁটকাপাটকি করে কসরৎ দেখানোর চেয়ে অপনভোলা দাদাবাবুর দানই শ্রেয়। একটাই চিন্তা, 'আঁধার (থুড়ি আধার) হলো ফেবুগাছের তলা' ম্যাজিক হলে আইটি সেলের ভাইটিরে এই টেস্টনি দাদা কী মুখোশ দেবেন?


শেয়ার করুন


Avatar: prativa

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

valo hochhe lekha gulo.aro chai.
Avatar: স

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

দারুন। লেখা চলুক
Avatar: রৌহিন

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

চমৎকার
Avatar: জিজি

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

থ্যাঙ্কু 😊
Avatar: অ

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

বাহ! দারুণ লেখা! আরও চাই।
Avatar: pi

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

ঃ))


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন