Zarifah Zahan RSS feed

Zarifah Zahanএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেল। আরোরা সাহেব
    দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেল।আরোরা সাহেব।সাল টা ১৯৯৩ / ৯৪।সদ্য বছর ৩ কলেজ ছেড়ে মাল্টিন্যাশনাল চাকরি, চরকির মত সারা দেশ ঘুরে বেড়াচ্ছি। সকালে দিল্লী, বম্বে, মাদ্রাস (তখনো মুম্বাই / চেন্নাই হয় নি) গিয়ে রাতে ফিরে বাড়ির ভাত খাওয়া তখন এলি তেলি ব্যাপার আমার ...
  • মাজার সংস্কৃতি
    মাজার সংস্কৃতি কোন দিনই আমার পছন্দের জিনিস ছিল না। বিশেষ করে হুট করে গজিয়ে উঠা মাজার। মানুষ মাজারের প্রেমে পরে সর্বস্ব দিয়ে বসে থাকে। ঘরে সংসার চলে না মোল্লা চললেন মাজার শিন্নি দিতে। এমন ঘটনা অহরহ ঘটে। মাজার নিয়ে যত প্রকার ভণ্ডামি হয় তা কল্পনাও করা যায় ...
  • এখন সন্ধ্যা নামছে
    মৌসুমী বিলকিসমেয়েরা হাসছে। মেয়েরা কলকল করে কথা বলছে। মেয়েরা গায়ে গা ঘেঁষটে বসে আছে। তাদের গায়ে লেপ্টে আছে নিজস্ব শিশুরা, মেয়ে ও ছেলে শিশুরা। ওরা সবার কথা গিলছে, বুঝে বা না বুঝে। অপেক্ষাকৃত বড় শিশুরা কথা বলছে মাঝে মাঝে। ওদের এখন কাজ শেষ। ওদের এখন আড্ডা ...
  • ছবিমুড়া যাবেন?
    অপরাজিতা রায়ের ছড়া -ত্রিপুরায় চড়িলাম/ ক্রিয়া নয় শুধু নাম। ত্রিপুরায় স্থাননামে মুড়া থাকলে বুঝে নেবেন ওটি পাহাড়। বড়মুড়া, আঠারোমুড়া; সোনামুড়ার সংস্কৃত অনুবাদ আমি তো করেছি হিরণ্যপর্বত। আঠারোমুড়া রেঞ্জের একটি অংশ দেবতামুড়া, সেখানেই ছবিমুড়া মানে চিত্রলপাহাড়। ...
  • বসন্তের রেশমপথ
    https://s19.postimg....
  • ভারতীয় প্রযুক্তিবিদ্যা ও লিঙ্গ অসাম্য
    ভারতের সেরা প্রযুক্তি শিক্ষার প্রতিষ্ঠান কোনগুলি জিজ্ঞেস করলেই নিঃসন্দেহে উত্তর চলে আসবে আইআইটি। কিন্তু দেশের সেরা ইনস্টিটিউট হওয়া সত্ত্বেও আইআইটি গুলিতে একটা সমস্যা প্রায় জন্মলগ্ন থেকেই রয়েছে। সেটা হল ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যার মধ্যে তীব্ররকমের লিঙ্গ অসাম্য। ...
  • যে কথা ব্যাদে নাই
    যে কথা ব্যাদে নাইআমগো সব আছিল। খ্যাতের মাছ, পুকুরের দুধ, গরুর গোবর, ঘোড়ার ডিম..সব। আমগো ইন্টারনেট আছিল, জিও ফুন আছিল, এরোপ্লেন, পারমানবিক অস্তর ইত্যাদি ইত্যাদি সব আছিল। আর আছিল মাথা নষ্ট অপারেশন। শুরু শুরুতে মাথায় গোলমাল হইলেই মাথা কাইট্যা ফালাইয়া নুতন ...
  • কাল্পনিক কথোপকথন
    কাল্পনিক কথোপকথনরাম: আজ ডালে নুন কম হয়েছে। একটু নুনের পাত্রটা এগিয়ে দাও তো।রামের মা: গতকাল যখন ডালে নুন কম হয়েছিল, তখন তো কিছু বলিস নি? কেন তখন ডাল তোর বউ রেঁধেছেন বলে? বাবা: শুধু ডাল নিয়েই কেন কথা হচ্ছে? পরশু তো মাছেও নুন কম হয়েছিল। তার বেলা? ...
  • ছদ্ম নিরপেক্ষতা
    আমেরিকায় গত কয়েক বছর ধরে একটা আন্দোলন হয়েছিল, "ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার" বলে। একটু খোঁজখবর রাখা লোকমাত্রেই জানবেন আমেরিকায় বর্ণবিদ্বেষ এখনো বেশ ভালই রয়েছে। বিশেষত পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গদের হেনস্থা হবার ঘটনা আকছার হয়। সামান্য ট্রাফিক ভায়োলেশন যেখানে ...
  • শুভ নববর্ষ
    ২৫ বছর আগে যখন বাংলা নববর্ষ ১৪০০ শতাব্দীতে পা দেয় তখন একটা শতাব্দী পার হওয়ার অনুপাতে যে শিহরণ হওয়ার কথা আমার তা হয়নি। বয়স অল্প ছিল, ঠিক বুঝতে পারিনি কি হচ্ছে। আমি আর আমার খালত ভাই সম্রাট ভাই দুইজনে কয়েকটা পটকা ফুটায়া ঘুম দিছিলাম। আর জেনেছিলাম রবীন্দ্রনাথ ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

টেস্টনি দাদাবাবু

Zarifah Zahan


দিব্যি নাইটির ডানদিকের খুঁটটা চিবিয়ে চিবিয়ে সন্ধ্যে সাতটায় কুসুম আজ দুলবে কি দুলবেনা টেনশনটা সবে জমে উঠেছে ওমনি পাঁচফোড়নে পেয়াঁজ ঢাললে পাক্কা সাড়ে ছয় মিনিটের ব্রেক! এটা সবে ট্রেলার। এরপর দোলনার দ' টুকুর মাথায় তেল ঘষতে না ঘষতেই আবার ট্রেলার বাবাজীবনের জড়ুয়া ভাইটি চলে আসবেন ঠিক। এক্কেরে ছাদে জামাকাপড় মেলা দেখলেই যেমন বৃষ্টি দিদিমণির কান ভরে ওঠে, বুকের ভেতর আনচান করে জেলুসিল জ্বালা, ঠিক সেরকম পিরীত আর কী। তা দিদিমণিকে দেখলেই জনগণের যে হারে পোয়েটিক প্রেম উঠলে ওঠে, বারো পুরুষের খেরোর খাতা মায় সেদিনের শব্দছককেও ঘাড়ে ধরে হরিমটর ফাটায় তাতে দিদিমণির রেলা বাড়ারই কথা। হাবভাবের ডাকসাইটে চিরসুন্দরী। সুচিত্রা সেন ও বৃষ্টি, বাঙালির জাতীয় প্রেমিকা। অতএব এসবে পেত‍্যয় না দিয়ে বরং নিউজ ব্রেকই সই।

সবে সবে গ্যাসের ভর্তুকি কমায় কীভাবে হাইড্রেনের পাশে স্বচ্ছ ভারত ট্যাক্স বাঁচিয়ে যা জমে তাতে মাসের খাতার এই সেকশনটা উইপোকার হাত থেকে বাঁচাবো ছক কষতে কষতেই শুনি ঘোষণা এসবিআই ম্যাজিক দেখাবে আগামীদিনে-মালিয়ার তুড়ি, সুদ থোড়ি, জনতার টাকা চুরি। বেশ একখান কে সি নাগের পাটিগণিতের বাঁদরের মতো হাল দিকি। 'জয় শ্রীরাম' 'ভারত মাতা কি জয়' বলে টলে যদিও বা এক ইঞ্চি উঠলাম বাঁশে তো সে এমনই তেলে দেশভক্তিতে সুরুৎ সিয়াচেনের তাপমাত্রা খেয়াল করবো কী ম্যাজিকের ধাক্কায় 'পা পিছলে আলুর দম' ( ভেজই সই, কাঁহাতক সনাতন মাছওয়ালা আর রোববারের খাসির মুখ ভেবে দুঃখে, পাকিস্তান যাওয়ার বিনা টিকিটের অফার ঢেলে আহুতি দেওয়ার কী দরকার!)। এরপর লেবেন্চুস ফেলে যতই 'আচ্ছে দিন' এর ভাব সম্প্রসারণ করতে যাই ততই দেখি ভাবের ঘরে চুরি।

অগত্যা ফেবুই ভরসা। ফেকুগণকে স্প্যাম এ পাঠিয়ে সবে ভাবতে বসেছি হ্যাশট্যাগ 'দেশপ্রেম' লিখে শেয়ার করলে স্ক্রিনের উপর কে কে দৌড়বে ওমনি দেখি বাজারে ধর্মের ষাঁড় ( গরু বলিনি, খামোকা মুন্ডপাত করবেন না তো বাপু!) হয়ে এয়েচেন টেস্টনি দাদা। সে কী আয়োজন।
একবার দিকি আমি দুগ্গা, আহ্লাদে আটখানা হয়ে প্যারাশুটে ভাসবো কি ভাসবোনা ভাবছি ওমনি হামাগুড়ি দিয়ে ইদিক উদিক ঘুরে দেখি দুগ্গার দোকান বসে গেছে এককোণে। সে কী ভিড়। কত শত দুগ্গা। অতএব বেল্ট খুলে প্যারাশুট গুছিয়ে টুকটুক এগোলাম। নিজেকে পদীপিসি দেখে বাক্স কোথায় খুঁজছি ওমনি চোখ চলে গেল পাশের দোকানে। এইবারে দেখি মাধবীর মুখোশ বরাদ্দ আমার। কেলো করেচে! শেষে কিনা ঠাকুরপো নিয়ে টানাটানি! ঘোমটা টেনে এগিয়ে দেখি হুদ্দাড় কাঠবুড়ো হয়ে গেছি ( তা চিরকাল রসকসহীন বলে একটা দুর্নাম ছিল থুড়ি আছে বৈকি)। এমন রেটে খোলসত্যাগ দেখেই কিনা কে জানে মতিগতি না ঠাউরাতে পেরে( এটা স্রেফ নিজেকে দেওয়া সান্ত্বনা পুরস্কার) দাদাবাবু ঘোষণা করলেন আগামী ১ বছরে আমার দ্বারা কিস‍্যুই হবেনা, শুধু ফুটপাথে ঘুরে বেড়াবো। বাজার আর ফুটপাথের দূরত্ব যে চিনা ফোনে পেটিএম ইউস করে চিন বয়কটের চিনচিনে দাবিমার্কাই উজ্জীবিত সে ব্যাটা টেস্টনি না টেস্ট করেই বাদাম চিবিয়ে তুড়ি মেরে বুঝে গেছে সেটা হজম করতে নাইটির বাঁখুঁট টাও জিম্মায় গেল চিবুনিপ্রেমের কোলে।

এই সই। বাঁশের মাথায় হাঁটকাপাটকি করে কসরৎ দেখানোর চেয়ে অপনভোলা দাদাবাবুর দানই শ্রেয়। একটাই চিন্তা, 'আঁধার (থুড়ি আধার) হলো ফেবুগাছের তলা' ম্যাজিক হলে আইটি সেলের ভাইটিরে এই টেস্টনি দাদা কী মুখোশ দেবেন?


শেয়ার করুন


Avatar: prativa

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

valo hochhe lekha gulo.aro chai.
Avatar: স

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

দারুন। লেখা চলুক
Avatar: রৌহিন

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

চমৎকার
Avatar: জিজি

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

থ্যাঙ্কু 😊
Avatar: অ

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

বাহ! দারুণ লেখা! আরও চাই।
Avatar: pi

Re: টেস্টনি দাদাবাবু

ঃ))


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন