Zarifah Zahan RSS feed

Zarifah Zahanএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেল। আরোরা সাহেব
    দি গ্ল্যামার অফ বিজনেস ট্রাভেল।আরোরা সাহেব।সাল টা ১৯৯৩ / ৯৪।সদ্য বছর ৩ কলেজ ছেড়ে মাল্টিন্যাশনাল চাকরি, চরকির মত সারা দেশ ঘুরে বেড়াচ্ছি। সকালে দিল্লী, বম্বে, মাদ্রাস (তখনো মুম্বাই / চেন্নাই হয় নি) গিয়ে রাতে ফিরে বাড়ির ভাত খাওয়া তখন এলি তেলি ব্যাপার আমার ...
  • মাজার সংস্কৃতি
    মাজার সংস্কৃতি কোন দিনই আমার পছন্দের জিনিস ছিল না। বিশেষ করে হুট করে গজিয়ে উঠা মাজার। মানুষ মাজারের প্রেমে পরে সর্বস্ব দিয়ে বসে থাকে। ঘরে সংসার চলে না মোল্লা চললেন মাজার শিন্নি দিতে। এমন ঘটনা অহরহ ঘটে। মাজার নিয়ে যত প্রকার ভণ্ডামি হয় তা কল্পনাও করা যায় ...
  • এখন সন্ধ্যা নামছে
    মৌসুমী বিলকিসমেয়েরা হাসছে। মেয়েরা কলকল করে কথা বলছে। মেয়েরা গায়ে গা ঘেঁষটে বসে আছে। তাদের গায়ে লেপ্টে আছে নিজস্ব শিশুরা, মেয়ে ও ছেলে শিশুরা। ওরা সবার কথা গিলছে, বুঝে বা না বুঝে। অপেক্ষাকৃত বড় শিশুরা কথা বলছে মাঝে মাঝে। ওদের এখন কাজ শেষ। ওদের এখন আড্ডা ...
  • ছবিমুড়া যাবেন?
    অপরাজিতা রায়ের ছড়া -ত্রিপুরায় চড়িলাম/ ক্রিয়া নয় শুধু নাম। ত্রিপুরায় স্থাননামে মুড়া থাকলে বুঝে নেবেন ওটি পাহাড়। বড়মুড়া, আঠারোমুড়া; সোনামুড়ার সংস্কৃত অনুবাদ আমি তো করেছি হিরণ্যপর্বত। আঠারোমুড়া রেঞ্জের একটি অংশ দেবতামুড়া, সেখানেই ছবিমুড়া মানে চিত্রলপাহাড়। ...
  • বসন্তের রেশমপথ
    https://s19.postimg....
  • ভারতীয় প্রযুক্তিবিদ্যা ও লিঙ্গ অসাম্য
    ভারতের সেরা প্রযুক্তি শিক্ষার প্রতিষ্ঠান কোনগুলি জিজ্ঞেস করলেই নিঃসন্দেহে উত্তর চলে আসবে আইআইটি। কিন্তু দেশের সেরা ইনস্টিটিউট হওয়া সত্ত্বেও আইআইটি গুলিতে একটা সমস্যা প্রায় জন্মলগ্ন থেকেই রয়েছে। সেটা হল ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যার মধ্যে তীব্ররকমের লিঙ্গ অসাম্য। ...
  • যে কথা ব্যাদে নাই
    যে কথা ব্যাদে নাইআমগো সব আছিল। খ্যাতের মাছ, পুকুরের দুধ, গরুর গোবর, ঘোড়ার ডিম..সব। আমগো ইন্টারনেট আছিল, জিও ফুন আছিল, এরোপ্লেন, পারমানবিক অস্তর ইত্যাদি ইত্যাদি সব আছিল। আর আছিল মাথা নষ্ট অপারেশন। শুরু শুরুতে মাথায় গোলমাল হইলেই মাথা কাইট্যা ফালাইয়া নুতন ...
  • কাল্পনিক কথোপকথন
    কাল্পনিক কথোপকথনরাম: আজ ডালে নুন কম হয়েছে। একটু নুনের পাত্রটা এগিয়ে দাও তো।রামের মা: গতকাল যখন ডালে নুন কম হয়েছিল, তখন তো কিছু বলিস নি? কেন তখন ডাল তোর বউ রেঁধেছেন বলে? বাবা: শুধু ডাল নিয়েই কেন কথা হচ্ছে? পরশু তো মাছেও নুন কম হয়েছিল। তার বেলা? ...
  • ছদ্ম নিরপেক্ষতা
    আমেরিকায় গত কয়েক বছর ধরে একটা আন্দোলন হয়েছিল, "ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার" বলে। একটু খোঁজখবর রাখা লোকমাত্রেই জানবেন আমেরিকায় বর্ণবিদ্বেষ এখনো বেশ ভালই রয়েছে। বিশেষত পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গদের হেনস্থা হবার ঘটনা আকছার হয়। সামান্য ট্রাফিক ভায়োলেশন যেখানে ...
  • শুভ নববর্ষ
    ২৫ বছর আগে যখন বাংলা নববর্ষ ১৪০০ শতাব্দীতে পা দেয় তখন একটা শতাব্দী পার হওয়ার অনুপাতে যে শিহরণ হওয়ার কথা আমার তা হয়নি। বয়স অল্প ছিল, ঠিক বুঝতে পারিনি কি হচ্ছে। আমি আর আমার খালত ভাই সম্রাট ভাই দুইজনে কয়েকটা পটকা ফুটায়া ঘুম দিছিলাম। আর জেনেছিলাম রবীন্দ্রনাথ ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

টস

Zarifah Zahan

আমাদের মেয়েবেলায় অভিজ্ঞান মেনে কোন মোলায়েম ডাঁটির গোলাপ ফুল ছিলনা যার পরিসংখ্যান না-মানা পাঁচটাকা সাইজের পাপড়িগুলো ছিঁড়ে ছিঁড়ে সিরিয়ালের আটার খনি আর গ্লিসারিনের একটা ইনডাইরেক্ট প্রোপরশন মুখে নিয়ে টেনশনের আইডিয়ালিজম ফর্মুলায় ফেলবো - "He loves me, he loves me not"
বাড়ি থেকে আমার স্কুল ছিল কিলোমিটার ছয়েক। সে রাস্তা ভেঙে ভেঙে ভ্যান এ চেপে যেতাম। বাড়ি থেকে বাসস্ট্যান্ড, সেখান থেকে হেঁটে বাজার। তারপর সুয্যিমামার পশ্চিমে ওঠার মতো কোনো দুর্মতি হলে যেমন সেটম্যাক্সে সূর্যবংশম এর সিডি ল্যাদঘুমে ডুব দেয় তেমনি বিয়েবাড়ির শেষব্যাচে পাওয়া মাছের পেটিদেখা কপালে শিঁকে ছিঁড়লে দৈবাৎ
কোনো ভ্যান, স্কুল অব্দি চারজন লোক জোটাতে পারলো কি পারলো না তাতে আমার কাল্পনিক ঘড়িমাপা পাক্কা তিরিশ মিনিটের হাঁটার পঞ্চত্বপ্রাপ্তি হতো মিনি টেনশনপর্ব শেষে। ফেরার সময় তাই আমি তক্কে তক্কে থাকতাম, ৭৮ ই বাসের আশায়। এই বাসটার রুট ছিল বনগাঁ থেকে দক্ষিনেশ্বর। অতএব টুক করে উঠে পড়লেই স্কুল টু বাড়ি আরামসে একটাকায় চলে আসা যাবে। বলাই বাহুল্য, যাওয়ার সময় এনার টিকি একদিনও দেখলে আর প্রেয়ার এর পর ভেজাবেড়াল মুখে স্কুলগেটে দাঁড়ালেই গোটা একটা পিরিয়ড গাছতলায় কান ধরে দাঁড়ানোর ওমন মোলায়েম স্নায়ুচাপ না থাকলে আমি এই 'ই' বাবাজির জন্যই অপেক্ষায় থাকতাম সারাজীবন। কোথায় লাগে তখন গোলাপের কাঁটা আর লাভস মি নট এর টস। যাকগে, যা বলছিলাম, প্রথম ভ্যান এর তিনটাকা আর পরের লটারিলাগা ভ্যানের চারটাকার বদলে একটাকার সওয়ারি হলে নিজেকে সুস্মিতা সেন ভেবে আম্মির কাছে দাঁড়াতাম। মুখে বিশ্বজয়ের গর্ব, শুধু মাথায় মুকুট, হাতে বোকে আর সামনে ক্যামেরার ঝলকানি উপস..বিশ্বমঞ্চেরই যা অভাব। তো এই 'ই' বাবাজি দর্শন দেবেন কি দেবেন না তারজন্য আমার টেনশন শুরু হতো টিফিন পিরিয়ডের পর পরই। গেটের মাঝখানের একটা মুঠোসমান গর্ত দিয়ে নেওয়া ফুচকাজল তখনো চুরমুর আর ঘুগনির সাথে ড্রিবলিঙে এঁটে উঠতে পারেনি তো কী আমার টেনশনের ঘন্টা তখনই পড়ে দাদরা থেকে কাহারবা হয়ে গেছে। কর্মশিক্ষা ক্লাসে খাতার শেষ পাতায় সবকটা কাটাকুটিতে আমি জিতলাম, তাহলে 'ই' র দেখা পাবো, নইলে পাবোনা। হিস্ট্রির ম্যাম আগেরদিনের পড়া ধরলো না আমায়, তাহলে 'ই' পাবো ফিরতি পথে, নইলে পাবো না।
ইদানিং ভাবছি সকালে উঠেই পরখ করবো, চায়ের জল ফুটে খাপে খাপ পরিমাপ, তাহলে কাগজে কোনো খুন-নির্যাতন-ধর্ষণ এর ঘটনা থাকবে না, নইলে থাকবে। নুন-চিনি-তেল সব মজুত, অতএব এসব ঘটনার খবর থাকবেনা, নইলে থাকবে। এই 'থাকছে'র ফাঁসে যখন দমবন্ধ, 'থাকবে' টাকে সরিয়েই একটা কয়েন বানাই না কেন - ঠিক শোলের জয় এর মত। প্রতিবারের টস এই 'থাকবেনা' পড়ুক হেড হয়ে।

শেয়ার করুন


Avatar: Zarifah Zahan

Re: টস

খুব ভালো লাগলো
Avatar: দ

Re: টস

বাহ
Avatar: ওর

Re: টস

আরে! লিংক থেকে কমেন্ট করায় জারিফার নামেই মন্তব্য পোস্টিত দেখি! লেখাটা ভালো।
Avatar: dd

Re: টস

ফাসক্লাস
Avatar: অ

Re: টস

বাহ! আরও আসুক এমন লেখা!!
Avatar: pi

Re: টস

আরে বাহ!
Avatar: দুর্দান্ত

Re: টস

হেব্বী!
Avatar: প্রতিভা

Re: টস

এইরকম টাটকা লেখা থাকবে কি থাকবে না ! আমার গুরু খুললেই নতুন টস শুরু হয়ে গেল।
Avatar: জারিফা

Re: টস

সব্বাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ :)

Avatar: শিবাংশু

Re: টস

বাহ...

Avatar: সেখ সাহেবুল হক

Re: টস

বাহ! দারুন
Avatar: ইন্দ্রাণী

Re: টস

বেশ লাগল।এ অভিজ্ঞতা আমার না থাকলে এর কাছাকাছি অনেক আছে।মানে বিশ্ব জয়ের মতন ব্যাপার স্যাপার আর কি!! লেখিকাকে ধন্যবাদ.... 😊
Avatar: পৃথা

Re: টস

খুব সুন্দর লেখা। আমিও করতাম ছোটবেলায় এই এটা হলে ওটা হবে কি হবে না টাইপের মানসিক টস।অনেক দিন বাদে মনে পড়ল।এই খেলা টার সাথে চমৎকার ভাবে বর্তমান প্রেক্ষাপটকে জুড়ে দেওয়া হয়েছে।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন